আমি কিভাবে মূল্য পরিশোধ করব

আমি কিভাবে মূল্য পরিশোধ করব

blog

আমাদের অনলাইন স্টরে যেসকল মাধ্যমে আপনি পণ্যের মূল্য পরিশোধ করবেন তার বিস্তারিত তথ্য এখানে দেয়া হলো

প্রথমত মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে

  • অনলাইন বিকাশের মাধ্যমে আপনি মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন কোন ধরনের অতিরিক্ত চার্জ ছাড়াই
  • মোবাইল ব্যাংকিং রকেট এর মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন
  • ওকে ওয়ালেট এর মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন
  • মোবাইল ব্যাংকিং নগদ এর মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন
  • মোবাইল ব্যাংকিং শিওর ক্যাশ এর মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন
  • এবি মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন।

যেসকল কার্ডের মাধ্যমে পেমেন্ট করতে পারবেন

  • বাংলাদেশি ব্যাংকের যে কোন ডেবিট কার্ড থেকে কেনাকাটা করতে পারবেন
  • বাংলাদেশি ইন্টারন্যাশনাল কার্ড এর মাধ্যমেও যেকোনো পণ্য কিনতে পারবেন
  • যে কোন বিদেশী ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমেও আমাদের অনলাইন স্টোর থেকে কেনাকাটা করতে পারবেন।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের নেক্সাস পে কার্ডের মাধ্যমেও কেনাকাটা করতে পারবেন।

ই এম আই বা মাসিক কিস্তিতে যেভাবে পণ্য ক্রয় করতে পারবেন

এই সুবিধাটি পাবর জন্য দুটি পদ্ধতিতে পেতে পারবেন সেজন্য আপনাকে সরাসরি আমাদের সঙ্গে দেখা করতে হবে এবং আমাদের স্টোর থেকে পণ্য কিস্তিতে নিতে পারবেন বা যেকোনো ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে আমাদের স্টোর থেকে সর্বোচ্চ 36 মাস সময়ে যেকোনো পণ্য কিনতে পারবেন।


অনলাইন ই এম আই পদ্ধতি

  • অনলাইন ই এম আই এর জন্য আপনার একটি ক্রেডিট কার্ড প্রয়োজন যার মাধ্যমে আপনি সর্বোচ্চ 36 মাস সময়ে কিস্তিতে যেকোনো পণ্য ক্রয় করতে পারবেন
  • যে সকল বাংলাদেশী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড প্রদান করে থাকে এদের ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে আপনি কিস্তিতে পণ্য কিনতে পারবেন আমাদের অনলাইন অর্ডার করার মাধ্যমে।

স্টোর কিস্তিতে যেভাবে পণ্য নিবেন

  • আপনার এনআইডি কার্ড সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে মূল এনআইডি কার্ড এ ক্ষেত্রে কোন ধরনের ফটোকপি গ্রহণযোগ্য হবে না
  • আপনার ইনকামের একটি সনদপত্র প্রয়োজন হবে এক্ষেত্রে ব্যবসায়ী হলে ট্রেড লাইসেন্স এবং চাকুরীজীবি হলে তার বেতনের ডকুমেন্ট
  • এবং একজন সিকিউরিটি প্রদানকারী ব্যক্তি যদি আপনি পণ্যের মূল্য পরিশোধ করতে অপারগতা স্বীকার করেন তাহলে সেই ব্যক্তিকে পণ্যের মূল্য পরিশোধ করতে হবে
  • এবং আপনি যদি চাকরিজীবী এবং ব্যবসায়ী কোন টি না হন তাহলে সমপরিমাণ কোন কিছু জামানত রেখে কিস্তিতে পণ্য নিতে পারবেন যখন আপনি সম্পূর্ণ কিস্তি পরিশোধ করবেন তখন আপনার জামানত কৃত জিনিসটি ফেরত দেয়া হবে।

এই কিস্তির মাধ্যমে কোন প্রকার অতিরিক্ত ফি পরিশোধ করতে হবে না শুধুমাত্র যে পরিমাণ পণ্যের মূল্য সেই পরিমাণ পরিশোধ করতে হবে।